যুক্তরাষ্ট্র ও রাশিয়া জানুয়ারি মাসে নিরাপত্তা বিষয়ক আলোচনায় বসবে

যুক্তরাষ্ট্র ও রাশিয়া জানুয়ারি মাসে নিরাপত্তা বিষয়ক আলোচনায় বসবে

রয়েল ভিউ ডেস্ক:
যুক্তরাষ্ট্র ও রাশিয়া জানুয়ারিতে পরমাণু অস্ত্র নিয়ন্ত্রণ ও রুশ-ইউক্রেন সীমান্তে উত্তেজনা বিষয়ে আলোচনায় মিলিত হবে।

হোয়াইট হাউজের জাতীয় নিরাপত্তা কাউন্সিলের একজন মুখপাত্র সাংবাদিকদের জানান দুটি পক্ষ ১০ই জানুয়ারী মিলিত হবে, এরপর ১২ই জানুয়ারী অনুষ্ঠিত হবে রুশ-নেটো বৈঠক এবং ১৩ই জানুয়ারী রাশিয়া, যুক্তরাষ্ট্র এবং ইউরোপের নিরাপত্তা ও সহযোগিতা সংস্থার অন্যান্য সদস্যরা বৈঠকে মিলিত হবেন।

মুখপাত্র জানান, "আমরা যখন আলোচনায় বসবো, রাশিয়া আলোচনার টেবিলে তাদের উদ্বেগ ব্যক্ত করতে পারে এবং আমরাও রাশিয়ার তৎপরতা সম্পর্কে আমাদের উদ্বেগের কথা জানাবো।কোনো কোনো ক্ষেত্রে আমরা আলোচনায় অগ্রগতি ঘটাতে পারি, আবার কোনো কোনো ক্ষেত্রে মতানৈক্য থাকবে , কূটনীতিতে যেমনটি হয়ে থাকে"।

পশ্চিমি দেশগুলি ইউক্রেন সীমান্ত বরাবর রুশ সেনা বৃদ্ধির ব্যাপারে শংকিত, যারা রাশিয়ার সম্ভাব্য দখল পরিকল্পনার ব্যাপারে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে। তবে রাশিয়ার নেতা ভ্লাদিমির পুতিন এ ধরণের কোনো পরিকল্পনার কথা অস্বীকার করেছেন এবং রাশিয়ার সীমান্তের কাছে নেটোর সম্প্রসারণের বিরুদ্ধে নিশ্চয়তা দাবি করেছেন।

জাতীয় নিরাপত্তা কাউন্সিলের মুখপাত্র বলেন, ইউক্রেনের নিজস্ব স্বার্থ বিষয়ে কোনো সিদ্ধান্ত যুক্তরাষ্ট্র ও রাশিয়ার এই আলোচনায় নেয়া হবে না।

মুখপাত্র বলেন, "ইউক্রেন বিষয়ে প্রেসিডেন্ট বাইডেনের দৃষ্টিভঙ্গি স্পষ্ট ও সঙ্গতিপূর্ণ, যা হলো প্রতিরোধ এবং কূটনীতি, এই দুইভাবে জোটকে একত্রিত করা। রাশিয়া যদি ইউক্রেনে অভিযান চালায়, যে পরিণাম রাশিয়া ভোগ করবে, সে ব্যাপারে আমাদের জোট একতাবদ্ধ"।